এবার মেসির হ্যাটট্রিকে দুরন্ত বার্সা

1157658802_02.jpg

মেসি-রোনালদো দ্বৈরথ বলে কথা! মাত্র ২৪ ঘণ্টা আগে তুর্কি জায়ান্ট গালাতাসারের বিপক্ষে হ্যাটট্রিক করেছিলেন পর্তুগিজ সুপারস্টার ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী হ্যাটট্রিক করেছেন, মেসি তো আর হাত-পা গুটিয়ে বসে থাকার পাত্র নন। বসেও থাকেননি। এক দিন পরই রোনালদোর হ্যাটট্রিকের জবাব দিয়েছেন এবং তা হ্যাটট্রিক করেই।
বুধবার রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে নিজেদের প্রথম ম্যাচে আয়াক্সকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে বার্সেলোনা। আর তাতে তিন গোলই আর্জেন্টাইন সুপারস্টার মেসির। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে রেকর্ড চারটি হ্যাটট্রিক এখন তার।
গত মৌসুমে বায়ার্ন মিউনিখের কাছে দুই লেগ মিলিয়ে সাত গোল খেতে হয়েছিল বার্সাকে। সেই ক্ষতটা এখনও ভুলতে পারছে না কাতালানরা। এবার ট্রফি ঘরে তুলতে পারলে হয়তো সেটা ভোলার উপলক্ষ পাবে তারা। ট্রফি জিততে পারবে কি না সেটা তো পরের ব্যাপার। তবে প্রথম ম্যাচে আর্জেন্টাইন ক্ষুদে জাদুকর জানিয়ে দিয়েছেন-এবার ট্রফির জন্য তারা ঝাঁপাবেনই।
কোচ হিসেবে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে দারুণ সূচনা হল জেরার্ডো মার্টিনোর। দল জিতলেও সমালোচকরা ইদানীং সেই ঐতিহ্যবাহী ছোট পাসের সুন্দর ফুটবল খুঁজে পাচ্ছিলেন না বার্সার মধ্যে। কিন্তু বুধবারের ম্যাচটিতে দেখা গেল সেই আসল বার্সেলোনাকে। প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচ খেলতে নেমে গোল করতে পারেননি ব্রাজিলিয়ান সেনসেশন নেইমার। কিন্তু তাই বলে ম্যাচে মোটেও খারাপ করেননি তিনি। তার অসাধারণ এক ক্রসে হেডে বার্সার তিন নম্বর গোলটি করেন পিকে। এছাড়া সারাক্ষণ আয়াক্সের রক্ষণভাগকে চাপে রেখে মেসিকে সহায়তা করে গেছেন নেইমার।
ক্যাম্প ন্যুতে এদিন শুরু থেকেই প্রতিপক্ষের ওপর চড়াও হয়ে খেলতে থাকে বার্সা। কিন্তু গোল পেতে অপেক্ষা করতে হয়েছে ২২ মিনিট পর্যন্ত। দুর্দান্ত ফ্রি-কিকে বার্সেলোনাকে এগিয়ে নেন লিওনেল মেসি। গোল খেয়ে অবশ্য ঘুরে দাঁড়ায় আয়াক্স। বার্সার রক্ষণভাগের ওপর চাপ সৃষ্টি করে তারা। ৩৪ মিনিটে অতিথিদের ভালো একটি আক্রমণ নস্যাত্ করে দেন বার্সা গোলকিপার ভিক্টর ভালদেস। ভ্যান হেইনের হেড ঝাঁপিয়ে পড়ে ঠেকিয়ে দেন। ৪০ মিনিটে আরও একটি আক্রমণ প্রতিহত করে দেন তিনি। দুয়ার্তের গতিময় মাটি কামড়ানো শট দারুণ দক্ষতায় লুফে নেন ভালদেস। প্রথমার্ধের খেলা শেষ হয় ১-০ তে।
দ্বিতীয়ার্ধে বার্সার খেলার গতি আরও বেড়ে যায়। ৫৪ মিনিটে বুসকেটসের পাস থেকে বাম পায়ের জোরালো শটে নিজের দ্বিতীয় গোলটি করেন মেসি। ৫৭ মিনিটেই হ্যাটট্রিকটা হয়ে যেত মেসির। কিন্তু নেইমারের কাছ থেকে পাওয়া বলে সুযোগটা কাজে লাগাতে পারেনি তিনি। তবে ৭৫ মিনিটে ভক্তদের হতাশ করেননি মেসি। জাভির কাছ থেকে বল পেয়ে দুই ডিফেন্ডারের মাঝ দিয়ে বল জালে পাঠিয়ে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন এ আর্জেন্টাইন তারকা। বার্সার হয়ে এটি তার ২৪তম হ্যাটট্রিক। আর চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এ নিয়ে মেসির গোল সংখ্যা দাঁড়াল ৬২। মেসির সামনে শুধু একজন। তিনি সাবেক রিয়াল স্ট্রাইকার রাউল গনজালেস। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে তার গোল ৭১টি। মেসির হ্যাটট্রিকের আগেই অবশ্য বার্সার তিন নম্বর গোলটি হয়ে গেছে। ৬৯ মিনিটে নেইমারের ক্রস থেকে জেরার্ড পিকে হেড করে বার্সাকে ৩-০ ব্যবধানে এগিয়ে দেন। ৭৭ মিনিটে পেনাল্টি পেয়েছিল আয়াক্স। বক্সের মধ্যে সেরেনোকে ফাউল করেছিলেন মাসচেরানো। কিন্তু কোলবিনের নেওয়া শটটা ঠেকিয়ে দেন ভালদেস।
ম্যাচ শেষে মেসি বলেন, ‘জয় দিয়ে শুরু করাটাই গুরুত্বপূর্ণ। বিশেষ করে ঘরের মাটিতে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচগুলো সবসময়ই কঠিন হয়। আশা করছি এ ধারা বজায় থাকবে।’ চ্যাম্পিয়ন্স লিগে দারুণ অভিষেক হল কোচ জেরার্ডো মার্টিনোর। তাই তো উচ্ছ্বসিত কণ্ঠে বললেন, ‘নিজেদের মাটিতে জয় দিয়ে শুরু করে আত্মবিশ্বাস বাড়ানোটা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আমরা বল বেশিরভাগ সময় আমাদের নিয়ন্ত্রণে রেখেছি এবং তাদের ভালোভাবে চাপে রেখেছি।’
তবে এ ম্যাচে একজনের কথা বিশেষভাবে না বললেই নয়। তিনি বার্সা কিপার ভালদেস। ম্যাচে অধিনায়কের আর্মব্যান্ড তার হাতেই ছিল। কারণ প্রথম একাদশে ছিলেন না জাভি। বার্সা ৪-০ তে জিতলেও আয়াক্স যে কয়টি আক্রমণ গড়েছিল তাতে ম্যাচটি ৪-৪ গোলে সমতা থাকলেও অবাক হওয়ার কিছু ছিল না। কেননা ভালদেস এদিন অতিথিদের পেনাল্টিসহ যে গোটা পাঁচেক দুর্দান্ত সেভ করেছেন তাতে হতাশই হতে হয়েছে ডাচ ক্লাবটিকে।

খেলা

বৃষ্টিতে ড্র ঢাকা টেস্ট

সিরিজের একটা নিষ্পত্তির জন্য মুখিয়ে ছিল দুই দল। কিন্তু বৃষ্টির বাধায় ধুয়ে মুছে গেল ঢাকা টেস্টের ...

‘বিশ্বকাপে নেইমারই ব্রাজিলের বাজি’

চলতি বছর ঘরের মাঠে ফিফা কনফেডারেশন কাপ নেইমারের জন্য একটা বড় পরীক্ষা ছিল। সেই পরীক্ষায় ‘জিপিএ ...

‘ড্রাগসের সঙ্গে আপস নয়’

স্প্রিন্ট জগতে যখন নামি-দামি তারকাদের ডোপপাপের খবর বেরোয় তখন চমকে উঠতে হয় বৈকি! এই তো সেদিন ...

প্রথম ওয়ানডেতে সালমাদের হার

দক্ষিণ আফ্রিকা সফরে বাংলাদেশ মহিলা ক্রিকেট দল স্বাগতিকদের কাছে প্রথম ওয়ানডেতে ৬ উইকেটে হেরে গেছে। বেনোনির ...

মেসি-রোনালদো দ্বৈরথ মানেই ম্যাজিক

ব্যাপারটা শচীন বনাম লারার লড়াইয়ের মতোই দাঁড়িয়ে গেছে। কে সেরা-লারা নাকি শচীন। এ প্রশ্নে রায় এখনও ...